লেখা নিয়ে সুধী পাঠকের কাছে আমার কৈফিয়ত

মাধ্যম আর ভাষার শুদ্ধতা নিয়ে ব্যস্ত হয়ে অবশেষে প্রকাশটাই হয় না। ফলে লেখকের মস্তিষ্কে বদহজম! নিজের চিন্তা বা জীবন দর্শনকে শব্দ-বাক্য-কবিতা-বা-গল্পে প্রকাশ না করা পর্যন্ত সেটাকে মূল্যায়ন বা অবমূল্যায়ন কিছুই করা যায় না। ভাষার শুদ্ধতা অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণ, তবে তা লেখকের জন্য শুরুতেই জরুরি নয়। জরুরি হলো নিজেকে প্রকাশ করার আকুতি নিবৃত্ত করা। সাধারণত সমাজ বা রাষ্ট্র ব্যক্তির আত্মপ্রকাশের প্রতিপক্ষ হয়ে দাঁড়ায়।ভাষা ও মাধ্যম যদি লেখকের মননে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে, তবে সমাজ বা রাষ্ট্র যা করার তা লেখক নিজেই করে ফেললেন।আমার পর্যবেক্ষণে, লেখকের মনে ভাষার চিন্তা করার পূর্বেই আসে ‘বিষয়ের চিন্তা’।

.
মাধ্যম বা প্রকার চিন্তা করার পূর্বেই আসে লেখার ধারণা বা অনুভব। ভাষার জটিলতা নিয়ে চিন্তা করার পূর্বে লেখক তার লেখার পটভূমি নিয়ে চিন্তিত হন, এটিই স্বাভাবিক। বিষয়ই যদি না থাকলো, তবে মাধ্যম বা শুদ্ধ ভাষা সেখানে কী করবে? লেখক চিন্তা করবেন তার অনুভব নিয়ে, তারপর মাধ্যম বেচে নেবেন। ভাষার চিন্তা প্রুফরিডাররা করুক! (এহেম! যা বলছিলাম…) ভেতরে যদি চিন্তা থাকে, মৌলিক ভাবনা থাকে, তবে সেটা প্রকাশ হওয়া উচিত, যত তাড়াতাড়ি সম্ভব। দেরি করলেই হারানোর সম্ভাবনা (হাছা কিনা?)।
.
প্রকাশের মাধ্যম তারপরে আসতে পারে।লেখা নিয়ে আমি অনেক কথাই বলছি বিভিন্ন ব্লগ পোস্টের মাধ্যমে। হয়তো সেখানে সবকিছুই অকাট্য নয়। কেউ কেউ একে বাঁকা চোখে দেখে বলতে পারেন, আমি খুব জ্ঞান প্রকাশ করছি বা শিক্ষা দিচ্ছি। প্রথমত, তাদেরকে সবিনয়ে বলতে চাই, প্রথমত নিজেকে বুঝার জন্যই আমি লিখছি। অস্কার ওয়াইল্ড-এর মতো নিজেকের বুঝার পর হয়তো লেখা থামিয়ে দেবো (কথার কথা!)!
.
দ্বিতীয়ত বলতে চাই, ব্লগের লেখা চূড়ান্ত নয়, এলেখা তো খসড়া হিসেবেই বিবেচিত। তৃতীয়ত, আমার বক্তব্য প্রশ্নাতীত তা কখনও দাবি করি নি, বরং পাঠককে ক্রিটিকেল হবার আহ্বান জানিয়েছি সুযোগ পেলেই। কিন্তু যে কথা অনেকবার বলেছি তা হলো, এখানে পাঠকরা খুবই সহানুভূতিশীল অন্যের অনুভূতির প্রতি চরম শ্রদ্ধাশীল; তারা সমালোচনা প্রায় করতেই চান না। এ মনোভাবকে আমি আংশিকভাবে গ্রহণ করি। তবে নানাবিধ কারণের মধ্যে এর একটি কারণ হতে পারে যে, গভীর মন্তব্য দেবার জন্য প্রয়োজন গভীরতর পর্যবেক্ষণ এবং সতর্ক পাঠ, যা অনেকের পক্ষেই সম্ভব হয়ে ওঠে না।
.
আত্মপক্ষ সমর্থন করে বলতে চাই, নিজের মনোভাবকে প্রকাশ করার জন্যই লিখছি – মাধ্যম নিয়ে চিন্তিত হই নি এখন পর্যন্ত। প্রবন্ধ, কবিতা, ছড়া ইত্যাদি একাধিক মাধ্যমে আমাকে বিচরণ করতে দেখে অনেকে বিস্মিত হতে পারেন, কিন্তু এখানেই আমার পরিচয়, যেমনটি আমার প্রোফাইল-এ আমি বলেছি। নিজেকে চেনার আজন্ম সংগ্রামে আমি এক অস্থির মানব। এক্ষেত্রে যা সত্যি নেতিবাচক হলেও তা দেখাতে আমার আপত্তি নেই। প্রবন্ধ, কবিতা বা ছড়া ইত্যাদি বিভিন্ন মাধ্যমেই আমি প্রকাশিত হতে চাই – যখন যা সুবিধার মনে হয়। ( বুঝেন, আমি কী কিছিমের লেখক!) সম্ভব হলে হয়তো গল্পকেও মাধ্যম হিসেবে নিতে পারি। হয়তো কোন একদিন গানও লিখে ফেলতে পারি! শিল্পীর তুলিতে রঙ নেওয়ার মতো স্বাধীনভাবে সবগুলো মাধ্যমকে আমি ব্যবহার করে দেখতে চাই, কোনটাতে আমার স্বাচ্ছন্দ্য। ভালো কথা মনে পড়েছে, হয়তো ছবিও এঁকে ফেলতে পারি কোনদিন! (পুরাই অস্থির!) উৎকর্ষতা অনেক পরের বিষয়, হয়তো তা কখনও অর্জিত হবে না। আপাতত ‘প্রকাশ ও প্রচেষ্টা’ আমার কাছে অগ্রাধিকার। হয়তো এ অগ্রাধিকার খুব তাড়াতাড়ি বদলাবে না। এ হলো নিজের লেখা সম্পর্কে সুহৃদ পাঠকের কাছে আমার বিনীত কৈফিয়ত।.

( মেহেরবানি করিয়া ব্রাকেটের কথাসমূহ ব্রাকেটের ভিতরেই রাখিবেন, বাহিরে আনিবেন না )

[১ এপ্রিল ২০১৩, অসম্পাদিত]

.

.

.

প্রথম আলো ব্লগে প্রাপ্ত মন্তব্য: (লেখাটি সরাসরি স্থানান্তরিত)

 ================================================

৫৬ টি মন্তব্য (প্রথম আলো ব্লগ)

meghneelমেঘনীল০১ এপ্রিল ২০১৩, ২০:২০

মাইনুল ভাই লেখাটি পড়ে ভালো লাগলো।সুন্দর আত্ববিশ্লেষনের আর্তনির্মান।শুভকামনা ।উত্তর দিন | মুছে ফেলুন | ব্লক করুন
Maeenমাঈনউদ্দিন মইনুল০১ এপ্রিল ২০১৩, ২১:১৯

প্রিয় মেঘনীলকে ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছামুছে ফেলুন
MatirMoynaমাটিরময়না০১ এপ্রিল ২০১৩, ২০:২২

মেহেরবানি করিয়া ব্রাকেটের কথাসমূহ ব্রাকেটের ভিতরেই রাখিবেন, বাহিরে আনিবেন নাআনিলে কোন জরিমানা দিতে হবে কিনা মন জানিবার চায়—উত্তর দিন | মুছে ফেলুন | ব্লক করুন
Maeenমাঈনউদ্দিন মইনুল০১ এপ্রিল ২০১৩, ২১:২২

ইহা অতীব গর্হিত কর্ম হইয়াছে, প্রিয় ভ্রাতা!
আমি তো আপনাকে বারণ করিয়াছিলাম।বারণ করিলে বুঝি আকর্ষণ বারিয়া যায়?যাই হোক, মঙ্গলে থাকিবেনমুছে ফেলুন
MatirMoynaমাটিরময়না০১ এপ্রিল ২০১৩, ২১:২৪

ইহা আমার বংশগত বালাই–যাহা আমাকে নিষেধ করা হইবে আমি তাহাই বেশী করিয়া করিব এবং বারংবার করিব– মুছে ফেলুন | ব্লক করুন
Maeenমাঈনউদ্দিন মইনুল০১ এপ্রিল ২০১৩, ২১:৩০

বুঝিয়াছিলাম প্রারম্ভেই….ইহা কি আপনার বিবাহের বর্ষ?
নিজেকে আরও শুদ্ধ করিতে হইবে…..মঙ্গলে থাকিবেনমুছে ফেলুন
MatirMoynaমাটিরময়না০১ এপ্রিল ২০১৩, ২১:৪৬

প্রিয় ভ্রাতা,আমি আমার সুখ সময়, মানে আমি বলিতে চাহিতেছি — আমার বিবাহ বর্ষ আমি বহু আগে পার করিয়া আসিয়াছি। আমার মাথায় এখন পুরোদস্তুর একটা খেলার মাঠ হইয়া গিয়াছে।আপনার মঙ্গল কামনা আমি দুহস্তে তুলিয়া রাখিলান। আশা করিতেছি অচিরেই কাজে লাগিবে।আপনিও ভালো থাকিবেন– আশা করিতেছি আবারো কুশ্লাদি বিনিময় হইবে।মুছে ফেলুন | ব্লক করুন

kamaluddinকামাল উদ্দিন০১ এপ্রিল ২০১৩, ২০:২২

এহেম! যা বলছিলাম…
হাছা কিনা?
কথার কথা!
বুঝেন, আমি কী কিছিমের লেখক!
পুরাই অস্থির!
……..এগুলোর কথা বলছেন তো উত্তর দিন | মুছে ফেলুন | ব্লক করুন
Maeenমাঈনউদ্দিন মইনুল০১ এপ্রিল ২০১৩, ২১:২৩

ইহা আপনি কী করিলেন, ভ্রাতঃ?
আপনাকে বারণ করিলাম কত?গুরু বুঝি এই শিক্ষা দিয়াছে আপনাকে?যাই হোক, মঙ্গলে থাকিবেনমুছে ফেলুন
BABLAমোহাম্মদ জমির হায়দার বাবলা০১ এপ্রিল ২০১৩, ২০:৩৯

গভীর মন্তব্য দেবার জন্য প্রয়োজন গভীরতর পর্যবেক্ষণ এবং সতর্ক পাঠ, যা অনেকের পক্ষেই সম্ভব হয়ে ওঠে না। সহমত।
আমরা সমালোচনায় যাই না এর দুটি কারণ থাকতে পারে এক. অনেকে বিষয়টিকে ইতিবাচক হিসেবে নেন না। অনেকে হালকা চটে যান। আমার সমালোচনামূলক এক মন্তব্যে হালকা করে সেটার আভাস পেয়েছিলাম। দুই. আমরা অনেকে প্রথম আর শেষ দুলাইন পড়েই মন্তব্য লিখে ফেলি—-
“খুব ভালো হয়েছে”, “দারুন”, “অসাধারণ” টাইপের দায় সারা কথা দিয়ে মন্তব্য শেষ করি। অনেকে মন্তব্য দেন দিতে হবে সেজন্য। অনেকের কথাটি কিছুটা বেমানান তবু ভালো “সময় করে পড়ে নেব”
। ইত্যাদি ইত্যাদি—
আমি মনে করি যে লেখাগুলো আমি উপভোগ করি না সেখানে মন্তব্য না দিলে তেমন কোন ক্ষতি নেই। না পড়ে ভালো হয়েছে টাইপের মন্তব্য দেয়া একটি প্রতারণা।
একদিন এক সহব্লগার দু:খভারাক্রান্ত মন নিয়ে তাঁর হতাশার কথা লিখে পোস্ট দিলেন।
“একজন মন্তব্য করে দিলেন বেশ চমৎকার হয়েছে।” অবশ্য লেখক উত্তরে যথার্থ বলেছেন- “এখানে চমৎকার কী দেখলেন?”
মইনুল ভাই, আজিব কিছু লিখলাম মনে হয়।
উত্তর দিন | মুছে ফেলুন | ব্লক করুন
Maeenমাঈনউদ্দিন মইনুল০১ এপ্রিল ২০১৩, ২১:২৫

হাহাহা! অনেক কথা বলে দিলেন বাবলা ভাই!
যথার্থ বিশ্লেষণ! নাহ্ ‘আজিব’ কিছু হয় নি।আমি নিজেও মন্তব্য দেবার চাপে থাকি না।
তবে লেখার মানই মন্তব্য প্রদানে বাধ্য করে, তখন তো আর অবিচার করতে পারি না।সুন্দর মন্তব্যের জন্য কৃতজ্ঞতা ও শুভেচ্ছা রইলোমুছে ফেলুন
Rabbaniরব্বানী চৌধুরী০১ এপ্রিল ২০১৩, ২১:৩০

” প্রথমত নিজেকে বুঝার জন্যই আমি লিখছি। ” চমৎকার ও আমার নিজের কথাও বটে। আপনার সাথে একমত হয়ে বলি নিজেকে জানার জন্য আমার বা আমাদের অনেকের ব্লগে লেখালেখি।প্রবন্ধটি – লেখার মান উন্নয়নের জন্যই। খুব ভালো লাগলো আর জানাও হল বেশ।শুভেচ্ছা জানবেন মইনুল ভাই।উত্তর দিন | মুছে ফেলুন | ব্লক করুন

Maeenমাঈনউদ্দিন মইনুল০১ এপ্রিল ২০১৩, ২২:০৩

“চমৎকার ও আমার নিজের কথাও বটে। আপনার সাথে একমত হয়ে বলি নিজেকে জানার জন্য আমার বা আমাদের অনেকের ব্লগে লেখালেখি।” এর চেয়ে প্রেরণাদায়ক আর কী হতে পারে!
তবে আপনার সাথে আমার যে মিলে, সেটা অনেক আগেই জেনেছি।রব্বানী ভাইকে শুভেচ্ছামুছে ফেলুন
fardoushaফেরদৌসা০১ এপ্রিল ২০১৩, ২১:৫০

প্রবন্ধ, কবিতা বা ছড়া ইত্যাদি বিভিন্ন মাধ্যমেই আমি প্রকাশিত হতে চাই – যখন যা সুবিধার মনে হয়। ( বুঝেন, আমি কী কিছিমের লেখক!) সম্ভব হলে হয়তো গল্পকেও মাধ্যম হিসেবে নিতে পারি। হয়তো কোন একদিন গানও লিখে ফেলতে পারি! শিল্পীর তুলিতে রঙ নেওয়ার মতো স্বাধীনভাবে সবগুলো মাধ্যমকে আমি ব্যবহার করে দেখতে চাই, কোনটাতে আমার স্বাচ্ছন্দ্য। ভালো কথা মনে পড়েছে, হয়তো ছবিও এঁকে ফেলতে পারি কোনদিন! (পুরাই অস্থির!)আমার লেখা আমি লিখুমযা খুশি তাই লিখুম ( যার মনে চায় পড়বে , না পড়লে না পড়বে )

তবে আপনি কিন্তু অনেক ভাল লিখেন, হাছা কতা উত্তর দিন | মুছে ফেলুন | ব্লক করুন

Maeenমাঈনউদ্দিন মইনুল০১ এপ্রিল ২০১৩, ২২:০৫

দারুণ উৎসাহ পেলাম।আপনার ব্রাকেটের কথাও ভালো লেগেছে!ফেরদৌসা আপাকে অনেক ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছামুছে ফেলুন
aihena039আবুহেনা মোঃ আশরাফুল ইসলাম০১ এপ্রিল ২০১৩, ২১:৫৫

প্রিয় মইনুল ভাই, প্রবন্ধটির মধ্যে চিন্তার খোরাক আছে। বাবলা ভাইয়ের মন্তব্যের সাথে একমত পোষণ করছি। ব্লগের এসব সীমাবদ্ধতার কারণে আমি প্রিন্ট মিডিয়াতে বেশি লিখে থাকি। যদিও ব্লগ একটা পরিবারের মতো মনে হয় বলে এখানে একাত্মতা অনুভব করি। মুল্যবান পোস্টটির জন্য ধন্যবাদ।বার্তার জবাব পেয়েছি। দ্বিতীয় প্রশ্ন নাই। সম্মানসূচক উত্তরের জন্য ধন্যবাদ।উত্তর দিন | মুছে ফেলুন | ব্লক করুন
Maeenমাঈনউদ্দিন মইনুল০১ এপ্রিল ২০১৩, ২২:০৯

ভাবনার মিল পেলে কার না ভালো লাগে!আবুহেনা ভাইকে অনেক ধন্যবাদ।মুছে ফেলুন
Maeenমাঈনউদ্দিন মইনুল০১ এপ্রিল ২০১৩, ২২:১০

গোলাম মোস্তফা ভাইকে ধন্যবাদ। সত্যিই আমার অনেক চা খেতে হয়মুছে ফেলুন
shahidulhaque77শাহিদুল হক০১ এপ্রিল ২০১৩, ২১:৫৭

আত্মপক্ষ সমর্থন করে বলতে চাই, নিজের মনোভাবকে প্রকাশ করার জন্যই লিখছি – মাধ্যম নিয়ে চিন্তিত হই নি এখন পর্যন্ত। প্রবন্ধ, কবিতা, ছড়া ইত্যাদি একাধিক মাধ্যমে আমাকে বিচরণ করতে দেখে অনেকে বিস্মিত হতে পারেন, কিন্তু এখানেই আমার পরিচয়, যেমনটি আমার প্রোফাইল-এ আমি বলেছি। নিজেকে চেনার আজন্ম সংগ্রামে আমি এক অস্থির মানব। এক্ষেত্রে যা সত্যি নেতিবাচক হলেও তা দেখাতে আমার আপত্তি নেই। প্রবন্ধ, কবিতা বা ছড়া ইত্যাদি বিভিন্ন মাধ্যমেই আমি প্রকাশিত হতে চাই – যখন যা সুবিধার মনে হয়। ( বুঝেন, আমি কী কিছিমের লেখক!) সম্ভব হলে হয়তো গল্পকেও মাধ্যম হিসেবে নিতে পারি। হয়তো কোন একদিন গানও লিখে ফেলতে পারি! শিল্পীর তুলিতে রঙ নেওয়ার মতো স্বাধীনভাবে সবগুলো মাধ্যমকে আমি ব্যবহার করে দেখতে চাই, কোনটাতে আমার স্বাচ্ছন্দ্য। ভালো কথা মনে পড়েছে, হয়তো ছবিও এঁকে ফেলতে পারি কোনদিন! (পুরাই অস্থির!) উৎকর্ষতা অনেক পরের বিষয়, হয়তো তা কখনও অর্জিত হবে না। আপাতত ‘প্রকাশ ও প্রচেষ্টা’ আমার কাছে অগ্রাধিকার। হয়তো এ অগ্রাধিকার খুব তাড়াতাড়ি বদলাবে না। এ হলো নিজের লেখা সম্পর্কে সুহৃদ পাঠকের কাছে আমার বিনীত কৈফিয়ত।”””””””””””””” ”””’’’’’’’’’’’এ কথাগুলো মনে হলো আমারও মনের কথা। আমি বেড়াতে চাই। ভাব জগতের প্রতিটি জায়গায়। তাতে অন্তত আমার আত্মা খুশি থাকবে। আর সত্য সব সময় সত্য। সত্যের হিসাব সকলেরই এক। আপনার প্রতিটি শব্দের সাথে সহমত ব্যক্ত করছি। সেই সাথে অনেক অনেক ধন্যবাদ আর ভালবাসা রইল।উত্তর দিন | মুছে ফেলুন | ব্লক করুন
Maeenমাঈনউদ্দিন মইনুল০১ এপ্রিল ২০১৩, ২২:১৩

“সত্যের হিসাব সকলেরই এক। আপনার প্রতিটি শব্দের সাথে সহমত ব্যক্ত করছি।”
চেহারার মিলের চেয়ে চেতনার মিল মানুষকে বেশি কাছে টানে। এজন্যই ব্লগ আমার এতো প্রিয়। এখানে চেতনায় মিশে গেছি আপনার মতো কবিমনের সাথে। শুভেচ্ছা জানবেন!মুছে ফেলুন
shahidulhaque77শাহিদুল হক০১ এপ্রিল ২০১৩, ২১:৫৯

এবার মন্তব্যের বিষয়ে লিখি। আমাকে আমার এক স্যার একদিন বললেন যে তুমি যদি কাউকে কিছু শিখাতে চাও তবে সমালোচনা না করে তাকে উৎসাহিত করবা। আর যদি তুমি শিখতে চাও তবে সমালোচনা করবা। আমি এ কথাটা মনে রেখে চলছি।ভালবাসা সতত।উত্তর দিন | মুছে ফেলুন | ব্লক করুন
Maeenমাঈনউদ্দিন মইনুল০১ এপ্রিল ২০১৩, ২২:১৮

সুন্দর কথা! আমার ভালো লেগেছে।আমি আমার সহকর্মীদের বলি, যদি কারও ভেতরের ভালো দিকটিতে উন্নয়ন করতে চান, তবে ভালো দিকগুলোর প্রশংসা করুন আর খারাপের উন্নয়ন করতে চান তবেই সমালোচনা করুন।তবে ‘সাহিত্য সমালোচনা’ মানে নেতিবাচক মন্তব্য নয়, তা তো আপনি ভালোই জানেন। সাহিত্য সমালোচনায় ভালো-মন্দ উভয়েরই ন্যয়সঙ্গত এবং বস্তুনিষ্ঠ বিশ্লেষণ থাকে।মুছে ফেলুন
shahidulhaque77শাহিদুল হক০১ এপ্রিল ২০১৩, ২৩:৩৬

এখানে দ্বিমত নেই। শুভকামনা সতত।মুছে ফেলুন | ব্লক করুন
Maeenমাঈনউদ্দিন মইনুল০২ এপ্রিল ২০১৩, ২১:১৬

সমালোচনা আছে বলেই শিল্পে আছে উৎকর্ষতা।কবিকে আবারও ধন্যবাদ!মুছে ফেলুন
sularyআলভী০১ এপ্রিল ২০১৩, ২২:০৭

ব্লগের লেখা চূড়ান্ত নয়, এলেখা তো খসড়া হিসেবেই বিবেচিত।প্রিয় মইনুল ভাই আপনার ব্যতিক্রমধর্মী পোষ্ট গুলো আমাকে লেখায় উৎসাহ যোগায়। বানান এবং ব্যাকরণের জাঁতা কলে পড়ে লেখার সাহস হারিয়ে ফেলি! অনেক সময় মনের ভাব প্রকাশের ক্ষেত্রে দ্বিধা-দ্বন্দে পড়ি। সে জন্য বেশ কিছু দিন লেখা পোষ্ট দেয়া থেকে বিরত আছি। চমৎকার পোষ্টের জন্য অনেক ধন্যবাদ ….।উত্তর দিন | মুছে ফেলুন | ব্লক করুন
Maeenমাঈনউদ্দিন মইনুল০১ এপ্রিল ২০১৩, ২২:২০

“বানান এবং ব্যাকরণের জাঁতা কলে পড়ে লেখার সাহস হারিয়ে ফেলি! অনেক সময় মনের ভাব প্রকাশের ক্ষেত্রে দ্বিধা-দ্বন্দে পড়ি।”-আমরা সকলেই প্রায় প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে এসেছি। সমস্যাগুলোও এক।সুন্দর মন্তব্যের জন্য আলভী ভাইকে কৃতজ্ঞতা ও শুভেচ্ছামুছে ফেলুন
sularyআলভী০১ এপ্রিল ২০১৩, ২২:২৬

rodela2012ঘাস ফুল০১ এপ্রিল ২০১৩, ২২:২৩

এখনো পড়ি নাই, চোখ বুলাইয়া গেলাম
ইট্টু পরে ঘুমাইতে যাইবেন এইডা কইয়া গেলাম
বেশী রাইতে পইড়া আমি মন্তব্যাবু ভাই
এখন তবে অন্য পোস্টে ঘুইরা আসি তাই।উত্তর দিন | মুছে ফেলুন | ব্লক করুন
Maeenমাঈনউদ্দিন মইনুল০২ এপ্রিল ২০১৩, ২০:৪৮

প্রিয় ঘাস ফুলকে শুভেচ্ছামুছে ফেলুন
baganbilas1207কামরুন্নাহার০১ এপ্রিল ২০১৩, ২২:৩৫

ব্লগের লেখা চূড়ান্ত নয়, এলেখা তো খসড়া হিসেবেই বিবেচিত। তৃতীয়ত, আমার বক্তব্য প্রশ্নাতীত তা কখনও দাবি করি নি, বরং পাঠককে ক্রিটিকেল হবার আহ্বান জানিয়েছি সুযোগ পেলেই। কিন্তু যে কথা অনেকবার বলেছি তা হলো, এখানে পাঠকরা খুবই সহানুভূতিশীল অন্যের অনুভূতির প্রতি চরম শ্রদ্ধাশীল; তারা সমালোচনা প্রায় করতেই চান না। এ মনোভাবকে আমি আংশিকভাবে গ্রহণ করি। তবে নানাবিধ কারণের মধ্যে এর একটি কারণ হতে পারে যে, গভীর মন্তব্য দেবার জন্য প্রয়োজন গভীরতর পর্যবেক্ষণ এবং সতর্ক পাঠ, যা অনেকের পক্ষেই সম্ভব হয়ে ওঠে না।আপনার সাথে একমত। ধন্যবাদ আপনার এই বলিষ্ঠ লেখার জন্য।উত্তর দিন | মুছে ফেলুন | ব্লক করুন
Maeenমাঈনউদ্দিন মইনুল০২ এপ্রিল ২০১৩, ২০:৪৮

কামরুন্নাহারকে ধন্যবাদ বলিষ্ঠ মন্তব্যের জন্যমুছে ফেলুন
KohiNoorমেজদা০১ এপ্রিল ২০১৩, ২২:৪২

মইনুল ভাই, খুব সত্যি কথা লিখেছেন। ভাবনা করে লিখি না কিন্তু বানান, অন্তরের ভিতরের সুক্ষ্মভাবনা আমি পরে ভাবি যা হয়তো আর পোস্টে যায় না। যখন আমার লেখা বই আকারে প্রকাশ করবো তখন ভিন্ন জিনিষ আসবে। আপনার সুচিন্তিত লেখায় সকলেই উপকৃত হবে।উত্তর দিন | মুছে ফেলুন | ব্লক করুন
Maeenমাঈনউদ্দিন মইনুল০২ এপ্রিল ২০১৩, ২০:৫১

“মইনুল ভাই, খুব সত্যি কথা লিখেছেন। ভাবনা করে লিখি না কিন্তু বানান, অন্তরের ভিতরের সুক্ষ্মভাবনা আমি পরে ভাবি যা হয়তো আর পোস্টে যায় না। যখন আমার লেখা বই আকারে প্রকাশ করবো তখন ভিন্ন জিনিষ আসবে। আপনার সুচিন্তিত লেখায় সকলেই উপকৃত হবে।” মেজদাকে অনেক ধন্যবাদ প্রেরণাদায়ক মন্তব্যের জন্য।ভালো থাকুন, প্রিয় গীতিকারমুছে ফেলুন
asrafulkabirআশরাফুল কবীর০১ এপ্রিল ২০১৩, ২৩:২২

কিন্তু যে কথা অনেকবার বলেছি তা হলো, এখানে পাঠকরা খুবই সহানুভূতিশীল অন্যের অনুভূতির প্রতি চরম শ্রদ্ধাশীল; তারা সমালোচনা প্রায় করতেই চান না। এ মনোভাবকে আমি আংশিকভাবে গ্রহণ করি। তবে নানাবিধ কারণের মধ্যে এর একটি কারণ হতে পারে যে, গভীর মন্তব্য দেবার জন্য প্রয়োজন গভীরতর পর্যবেক্ষণ এবং সতর্ক পাঠ, যা অনেকের পক্ষেই সম্ভব হয়ে ওঠে না।#শুভেচ্ছা আপনাকে প্রিয় মাঈনউদ্দীন মইনুল ভাই আলোচনামূলক একটি পোস্ট দেয়ার জন্য#“এখানে পাঠকরা খুবই সহানুভূতিশীল অন্যের অনুভূতির প্রতি চরম শ্রদ্ধাশীল; তারা সমালোচনা প্রায় করতেই চান না…..প্রথম আলো ব্লগের বোধ হয় বিশেষত্ব এটাই, এখানে সৌহার্দ্যের পরিমান অন্য ব্লগের তুলনায় বেশী…অন্য ব্লগেও সৌহার্দ্য রয়েছে তবে তা প্রথম আলো ব্লগের মতো এতোটা দৃঢ় নয়।#এবার আসি সমালোচনার ব্যাপারে…সমালোচনার ব্যাপারে প্রয়োজন প্রখর দৃষ্টিভঙ্গি, অভিজ্ঞতা, পাঠাভ্যাস সর্বোপরি রেলিভ্যান্ট ফিল্ডে এক্সপার্ট যারা তাদের…যা আপনি আপনার আংশিকভাবে গ্রহণ করার মনোভাবের মাধ্যমে উন্মোচন করেছেন..ভালো লেগেছে আপনার অভিব্যক্তি..একটু অফটপিকে যাই..আমার জানাশোনা এবং স্বল্পায়ু ব্লগিংয়ের অভিজ্ঞতায় দেখেছি অধিকাংশ নামকরা ব্লগে সমালোচনার নামে যা হয় তা হলো গালাগালি (প্রথমে কিছুটা ভালোভাবে শুরু হয় অত:পর…….ভালো কিছু আছে তবে তা প্রয়োজনের তুলনায় অপ্রতুল)

#সমালোচনার জন্য আমার একটি অনুভূতি আপনি কিছুটা প্রকাশ করেছেন এ লাইনের মাধ্যমে “ভাষার শুদ্ধতা অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণ, তবে তা লেখকের জন্য শুরুতেই জরুরি নয়। জরুরি হলো নিজেকে প্রকাশ করার আকুতি নিবৃত্ত করা” পাঠক হিসেবে অবশ্যই সমালোচনা করার অধিকার আছে তবে তা করার পূর্বে পর্যাপ্ত জ্ঞান থাকা জরুরী (আমি জানি আমার নেই, তাই করিনা), ইতোপূর্বে অনেকেরই এ বিষয়ে লেখা গোচরীভূত হয়েছে তবে বলার সুযোগ পাইনি..আমার মতে কোন একটি ফিল্ডকে বুঝতেও সময় লাগে বছর তিনেক..তাই পর্যাপ্ত সময় না নিয়েই তাড়াহুড়ো করা আমার মতের বাইরে।

#একটি ফিল্ডে আমি হুট করে একটি কমেন্ট করতে পারি (যা সমালোচনার কাভারে আসতেও পারে আবার নাও আসতে পারে) আমি ভাবছি আমি কমেন্টের মাধ্যমে একটি বিষয়কে কেন্দ্র কর সমালোচনা করেছি কিন্তু তা পোস্টদারীর বক্তব্যের বাইরেও চলে যেতে পারে আর যদি নাও যায় তাহলেও তার লেখার প্ল্যাটফর্মে হানতে পারে বিশাল আঘাত যা কোনভাবেই কাম্য নয়..আমার করা কোন একটি কমেন্টের জন্য সেই ব্লগারের লেখার প্রতি কাজ করতে পারে চরম বিতৃষ্ণা..হয়তোবা কমে যেতে পারে পোস্টের সংখ্যা। ব্যাপারটি কিন্তু খুবই দু:খজনক হবে তখন। হ্যাঁ..বলতে পারেন কারো সমালোচনায় সেই ব্লগারের লেখার উৎকর্ষ সাধন হতে পারে প্রাথমিক সময় থেকে, পেতে পারে উল্লেখযোগ্য দিকনির্দেশনা তবে সেখানেও সমস্যা আসবে..তিনি কতোটুকু ভাল জানেন সে ব্যাপারে প্রশ্ন থেকে যায়।

#আমার মনে হয় “এখানে/ওখানে কেউ সমালোচনা করেনা” এ ধরনের গন্ডিতে আমাদের বক্তব্যকে আটকে না রেখে..নিজে নিজেই শুরু করিনা কেনো? আপনিই শুরু করুননা..আপনাকে (প্রিয় ব্লগ রত্নকে) দেখে দেখে যদি আমরা কিছুটা শিখতে পারি….কারন “উৎকর্ষতা অনেক পরের বিষয়” অন্তত আমি আমার কথা বলতে পারি..এখনো ব্লগিংয়ের এলিমেন্টারি লেভেলেই আছিতো।

#ভাল থাকুন..আপনার সাবমিসিব মুড ভালো লেগেছে..জয়তু প্রথম আলো ব্লগিংউত্তর দিন | মুছে ফেলুন | ব্লক করুন

Maeenমাঈনউদ্দিন মইনুল০২ এপ্রিল ২০১৩, ২০:৫৮

#“এখানে পাঠকরা খুবই সহানুভূতিশীল অন্যের অনুভূতির প্রতি চরম শ্রদ্ধাশীল; তারা সমালোচনা প্রায় করতেই চান না…..প্রথম আলো ব্লগের বোধ হয় বিশেষত্ব এটাই, এখানে সৌহার্দ্যের পরিমান অন্য ব্লগের তুলনায় বেশী…অন্য ব্লগেও সৌহার্দ্য রয়েছে তবে তা প্রথম আলো ব্লগের মতো এতোটা দৃঢ় নয়।
-একমত। #এবার আসি সমালোচনার ব্যাপারে…সমালোচনার ব্যাপারে প্রয়োজন প্রখর দৃষ্টিভঙ্গি, অভিজ্ঞতা, পাঠাভ্যাস সর্বোপরি রেলিভ্যান্ট ফিল্ডে এক্সপার্ট যারা তাদের…যা আপনি আপনার আংশিকভাবে গ্রহণ করার মনোভাবের মাধ্যমে উন্মোচন করেছেন..ভালো লেগেছে আপনার অভিব্যক্তি..একটু অফটপিকে যাই..আমার জানাশোনা এবং স্বল্পায়ু ব্লগিংয়ের অভিজ্ঞতায় দেখেছি অধিকাংশ নামকরা ব্লগে সমালোচনার নামে যা হয় তা হলো গালাগালি (প্রথমে কিছুটা ভালোভাবে শুরু হয় অত:পর…….ভালো কিছু আছে তবে তা প্রয়োজনের তুলনায় অপ্রতুল)
-একমত। আমিও এমন দেখেছি।

#সমালোচনার জন্য আমার একটি অনুভূতি আপনি কিছুটা প্রকাশ করেছেন এ লাইনের মাধ্যমে “ভাষার শুদ্ধতা অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণ, তবে তা লেখকের জন্য শুরুতেই জরুরি নয়। জরুরি হলো নিজেকে প্রকাশ করার আকুতি নিবৃত্ত করা” পাঠক হিসেবে অবশ্যই সমালোচনা করার অধিকার আছে তবে তা করার পূর্বে পর্যাপ্ত জ্ঞান থাকা জরুরী (আমি জানি আমার নেই, তাই করিনা), ইতোপূর্বে অনেকেরই এ বিষয়ে লেখা গোচরীভূত হয়েছে তবে বলার সুযোগ পাইনি..আমার মতে কোন একটি ফিল্ডকে বুঝতেও সময় লাগে বছর তিনেক..তাই পর্যাপ্ত সময় না নিয়েই তাড়াহুড়ো করা আমার মতের বাইরে।
-দায়িত্বশীল মনোভাব দেখালেন। এরকম যুক্তি থাকলে আলাদা কথা।#একটি ফিল্ডে আমি হুট করে একটি কমেন্ট করতে পারি (যা সমালোচনার কাভারে আসতেও পারে আবার নাও আসতে পারে) আমি ভাবছি আমি কমেন্টের মাধ্যমে একটি বিষয়কে কেন্দ্র কর সমালোচনা করেছি কিন্তু তা পোস্টদারীর বক্তব্যের বাইরেও চলে যেতে পারে আর যদি নাও যায় তাহলেও তার লেখার প্ল্যাটফর্মে হানতে পারে বিশাল আঘাত যা কোনভাবেই কাম্য নয়..আমার করা কোন একটি কমেন্টের জন্য সেই ব্লগারের লেখার প্রতি কাজ করতে পারে চরম বিতৃষ্ণা..হয়তোবা কমে যেতে পারে পোস্টের সংখ্যা। ব্যাপারটি কিন্তু খুবই দু:খজনক হবে তখন। হ্যাঁ..বলতে পারেন কারো সমালোচনায় সেই ব্লগারের লেখার উৎকর্ষ সাধন হতে পারে প্রাথমিক সময় থেকে, পেতে পারে উল্লেখযোগ্য দিকনির্দেশনা তবে সেখানেও সমস্যা আসবে..তিনি কতোটুকু ভাল জানেন সে ব্যাপারে প্রশ্ন থেকে যায়।
-দায়িত্বশীল মন্তব্য দিলে এমনটা হবার সুযোগ নেই। ব্যক্তিকে নয়, লেখাকে কেন্দ্র করে আলোচনা চললে, তা খারাপের দিকে যাবার কথা নয়। প্রচলিত অর্থে সমালোচনা বলতে যা বুঝায়, সাহিত্য সমালোচনা তো তা নয়। আপনি জানেন যে, সাহিত্যে যুক্তিসংগতভাবে লেখকের প্রশংসা করলেও সেটা ‘সমালোচনা’।#আমার মনে হয় “এখানে/ওখানে কেউ সমালোচনা করেনা” এ ধরনের গন্ডিতে আমাদের বক্তব্যকে আটকে না রেখে..নিজে নিজেই শুরু করিনা কেনো? আপনিই শুরু করুননা..আপনাকে (প্রিয় ব্লগ রত্নকে) দেখে দেখে যদি আমরা কিছুটা শিখতে পারি….কারন “উৎকর্ষতা অনেক পরের বিষয়” অন্তত আমি আমার কথা বলতে পারি..এখনো ব্লগিংয়ের এলিমেন্টারি লেভেলেই আছিতো।

-আমি শুধু ‘শুরু’ করি নি, নিয়মিতভাবেই করার চেষ্টাই করি। তাতে লেখক বা পোস্টদাতার সাথে আমার সম্পর্কের অবনতি ঘটে নি। এসব প্রকাশ করে পোস্টদাতাকে প্রশ্নের সম্মুখীন করতে চাই না। ভিন্নমত পোষণ করেছি এরকম দু’টি লেখার লিংক আপনাকে বার্তায় পাঠালাম।

প্রিয় আশরাফুল কবীর ভাই, নিরামিষ মন্তব্য আপনি নিজেও করেন না, তা আমার লেখায় আপনার মন্তব্যে দেখতে পাই। কিন্তু, শুধু একটি ইমোটিকোন দিয়ে একটি সাহিত্যকর্মের প্রতি মতামত প্রকাশ করা যায়?

তাৎপর্যপূর্ণ মন্তব্য দিয়ে আপনি সবসময়ই আমার লেখাকে করেছেন সমৃদ্ধ। এবারও ব্যতিক্রম করেন নি। কৃতজ্ঞতা!

ভালো থাকুন, কবি!মুছে ফেলুন

MirHamidহামি্দ০১ এপ্রিল ২০১৩, ২৩:৪৭

ভালো লাগলো লেখাটি।উত্তর দিন | মুছে ফেলুন | ব্লক করুন
Maeenমাঈনউদ্দিন মইনুল০২ এপ্রিল ২০১৩, ২১:০০

ভাই হামিদ, আপনাকে অনেক ধন্যবাদ লেখাটিতে মতামত দেবার জন্য! মুছে ফেলুন
Rjamilরশীদ জামীল০১ এপ্রিল ২০১৩, ২৩:৫৪

সালাম মইনুল ভাই। লেখাটা হচ্ছে প্রকৃতির একটি দান। অনেক বেশি শিক্ষিত হলেই লেখক হওয়া যায় না। আবার খুব বেশি পড়ালেখা না করেও অনেকে ভাল লেখক হয়ে উঠে। এ জন্য লেখা যখন যাকে যেভাবে ডাকে, সেভাবেই সাড়া দেয়া উচিত। সেটা গদ্য হোক আর পদ্য।আপনি যেসব বিষয়েই লিখছেন, সবগুলোতেই পূর্ণতার ছাপ বিদ্যমান।
না, গতানুগতিক ধারায় বলছি না। একদম সত্যটাই বলছি।
সো, লিখে যান। পাশে আছি, পাঠক হয়ে।——————-উত্তর দিন | মুছে ফেলুন | ব্লক করুন
rodela2012ঘাস ফুল০২ এপ্রিল ২০১৩, ০৪:৫৩

বেডাডায় খালি বুইরা আঙ্গুল দেহাইব। দিমুনে একদিন মোচর দিয়া ভাইঙ্গা। তহন টের পাইব নে। মুছে ফেলুন | ব্লক করুন
Maeenমাঈনউদ্দিন মইনুল০২ এপ্রিল ২০১৩, ২১:২১

“লেখাটা হচ্ছে প্রকৃতির একটি দান। অনেক বেশি শিক্ষিত হলেই লেখক হওয়া যায় না। আবার খুব বেশি পড়ালেখা না করেও অনেকে ভাল লেখক হয়ে উঠে। এ জন্য লেখা যখন যাকে যেভাবে ডাকে, সেভাবেই সাড়া দেয়া উচিত। সেটা গদ্য হোক আর পদ্য।”আহা! লিখে রাখার মতো, বান্ধিয়ে রাখার মতো কথা!
আমার পোস্টের লেখাগুলো মুছে শুধু এ দু’টি লাইন দিলেই সব কথা বলা হয়ে যাবে।প্রিয় রশীদ জামীল ভাইকে অনেক শুভেচ্ছা!!মুছে ফেলুন
Maeenমাঈনউদ্দিন মইনুল০২ এপ্রিল ২০১৩, ২১:২৯

দুষ্টু ছোটভাই ঘাসফুলকেও শুভেচ্ছা!মুছে ফেলুন
Sagar33সাগর মন্ডল০২ এপ্রিল ২০১৩, ০০:৩১

Maeenমাঈনউদ্দিন মইনুল০২ এপ্রিল ২০১৩, ২১:০১

সুন্দর ফুলে ধন্যবাদ জানিয়ে কৃতজ্ঞ করলেন, ভাই সাগর মণ্ডল!
আপনাকে অনেক শুভেচ্ছামুছে ফেলুন
vuterachorভূতের আছড়০২ এপ্রিল ২০১৩, ০০:৫৭

ভালো লাগলো
তবে বেরাকেটের ভিত্রের বিষয় ভিত্রে রাখসি ভালো থাকতে ভুল হয়না যেনো?উত্তর দিন | মুছে ফেলুন | ব্লক করুন
Maeenমাঈনউদ্দিন মইনুল০২ এপ্রিল ২০১৩, ২১:০২

“তবে বেরাকেটের ভিত্রের বিষয় ভিত্রে রাখসি”কথা রাখার জন্য ধন্যবাদ, প্রিয় ভুত ভাই!ভালো থাকতে ভুল করবো না,
আপনিও যেন না করেন!মুছে ফেলুন
rodela2012ঘাস ফুল০২ এপ্রিল ২০১৩, ০৪:৫০

মইনুল ভাই সালাম নিবেন।
এই পর্যন্ত আপনার যত লেখা পড়েছি, তার সবগুলোর মধ্যেই আন্তরিকতা, গভীরতা এবং শিক্ষণীয় কিছু পেয়েছি। আমার তো মনে হয়, যদি আপনি যত্ন নিয়ে লিখেন (যদিও লিখেন) তাহলে সাহিত্যের যে কোন শাখায়ই আপনি নিঃসন্দেহে ভালো করবেন। কারণ আপনার মধ্যে সবই আছে। এখন শুধু দরকার সেটা লেখনীর মাধ্যমে পাঠকের সাথে শেয়ার করা। যা দ্বারা পাঠক উপকৃত হবে। মন্তব্যের ব্যাপারে যা বলেছেন তাতে সহমত জানালাম। সমালোচনামূলক মন্তব্যের ভালো এবং মন্দ দুটো দিকই আছে। কিন্তু দুর্ভাগ্যের ব্যাপার হল, আমরা শুধু মন্দটাই দেখি, ভালোটা বুঝার চেষ্টা করি না। আর সেই জন্য শেষ পর্যন্ত আর লেখক হওয়া হয়ে উঠে না। আমি অনেককেই বলেছি, আমি পুরো লেখা না পড়ে মন্তব্য করি না। তারপরেও মন্তব্যে যদি কোন ভুল হয়ে থাকে সেটা আমার না বুঝার ভুল। হয়তো আমি লেখাটিকে ঠিক মতো বুঝতে পারি নাই। এখানে লেখকের কোন দোষ নাই। আবার কিছু লেখা আছে যেখানে আসলে বলার মতো কিছুই থাকে না অথবা লেখাটি এতোই তথ্যবহুল যে, নতুন করে যোগ করার সেখানে কিছুই নাই। সেই ক্ষেত্রে আপনাকে চমৎকার, দারুণ, অসাধারণ, অপূর্ব, মুগ্ধ বা সহমত এইধরনের শব্দই ব্যবহার করতে হবে। আসলে সব কিছুই নির্ভর করে লেখার ওপরে। অনেক কিছুই বলার ছিল, কিন্তু অনেকেই বলে গেছেন। তাই আর কষ্ট করে ওমুখো পা বাড়ালাম না। আমি আবার কিছুটা অলস কিছিমের। আত্মসমালোচনামূলক কিন্তু আমাদের জন্য শিক্ষণীয় সুন্দর এই পোস্টের জন্য অনেক অনেক ধন্যবাদ মইনুল ভাই। আমি কিন্তু ভিত্রের লেখা আরও ভিত্রে হান্দাইয়া দিছি। কিনুতা পেরকাশ করি নাই।উত্তর দিন | মুছে ফেলুন | ব্লক করুন
Maeenমাঈনউদ্দিন মইনুল০২ এপ্রিল ২০১৩, ২১:১৪

“সমালোচনামূলক মন্তব্যের ভালো এবং মন্দ দুটো দিকই আছে। কিন্তু দুর্ভাগ্যের ব্যাপার হল, আমরা শুধু মন্দটাই দেখি, ভালোটা বুঝার চেষ্টা করি না। আর সেই জন্য শেষ পর্যন্ত আর লেখক হওয়া হয়ে উঠে না।”
—————————সহমত। আপনি তো জানেন প্রশংসা করতে বেশি চিন্তাশীল হবার প্রয়োজন নেই, সমালোচনা করতে গেলে সত্যিই লেখাটিকে ভালোমতো পর্যবেক্ষণ করতে হয়, ক্রসচেকিং করতে হয়।প্রশংসা সহজ, কিন্তু সমালোচনা কঠিন।প্রশংসায় লেখককে কিছু উপকার তো করেই, কিন্তু প্রকৃত উপকার করে সমালোচনায়। সমালোচনা করার জন্য একটু বাড়তি খাটনিও আছে।

একজন সমালোচক বলে দিতে পারেন, কোথায় আপনার জোর কোথায় আপনার কমজোর। কোথায় দক্ষতা আর কোথায় দুর্বলতা। সাহিত্যের, পটভূমির, ভাষার ইত্যাদির।

সমঝদার সমালোচক কিন্তু এর জন্য মায়েনাও দাবি করতে পারেন এবং এযুগে তা করেও।

সমালোচনাই যুগে যুগে সাহিত্যকে করেছে সমৃদ্ধ ও অলংকৃত। সমালোচনা আছে বলেই শিল্পে আছে উৎকর্ষ!

আমার লেখা সম্পর্কে আপনার উদার প্রশংসার জন্য অশেষ ধন্যবাদ, প্রিয় ঘাসফুল। ভালো থাকুন!মুছে ফেলুন

rodela2012ঘাস ফুল০২ এপ্রিল ২০১৩, ২১:৫৫

প্রশংসায় লেখককে কিছু উপকার তো করেই, কিন্তু প্রকৃত উপকার করে সমালোচনায়। সমালোচনা করার জন্য একটু বাড়তি খাটনিও আছে। একজন সমালোচক বলে দিতে পারেন, কোথায় আপনার জোর কোথায় আপনার কমজোর। কোথায় দক্ষতা আর কোথায় দুর্বলতা। সাহিত্যের, পটভূমির, ভাষার ইত্যাদির।সমঝদার সমালোচক কিন্তু এর জন্য মায়েনাও দাবি করতে পারেন এবং এযুগে তা করেও। সমালোচনাই যুগে যুগে সাহিত্যকে করেছে সমৃদ্ধ ও অলংকৃত। সমালোচনা আছে বলেই শিল্পে আছে উৎকর্ষ!

মুছে ফেলুন | ব্লক করুন

charumannanচারুমান্নান০২ এপ্রিল ২০১৩, ১৩:৩৯

বিষদ আলোচনা সমালোচনা,,,,,,,,,,,,,,,,,
আমাদের অস্তিত্বের শিকড় নড়ে উঠল,,,,,,,,,একটি ফুলকে বাঁচাবো বলে
উত্তর দিন | মুছে ফেলুন | ব্লক করুন
Maeenমাঈনউদ্দিন মইনুল০২ এপ্রিল ২০১৩, ২১:১৭

কবিকে শেষ বসন্তের শুভেচ্ছামুছে ফেলুন
sopnerdin45এনামুল রেজা০২ এপ্রিল ২০১৩, ২১:০৬

হুম। কিন্তু আমি নিজের একটা ব্যপার কিছুটা ধরতে পেরেছি। যেকোন লেখাই মজা নিয়ে পড়লেই পর মজা করে নিজের লেখাটা জরুরি। মানে মনযোগি পাঠক হওয়াটা ভাব প্রকাশের জন্য মবিল হিসেবে কাজ করে….উত্তর দিন | মুছে ফেলুন | ব্লক করুন
Maeenমাঈনউদ্দিন মইনুল০২ এপ্রিল ২০১৩, ২১:১৯

“কিন্তু আমি নিজের একটা ব্যপার কিছুটা ধরতে পেরেছি। যেকোন লেখাই মজা নিয়ে পড়লেই পর মজা করে নিজের লেখাটা জরুরি। মানে মনযোগি পাঠক হওয়াটা ভাব প্রকাশের জন্য মবিল হিসেবে কাজ করে….”-মূল্যবান কথা! প্রিয় অরিত্র অন্বয় ভাইকে শুভেচ্ছা!
ভালো থাকুন বসন্তের শেষ দিনগুলোতেমুছে ফেলুন
sopnerdin45এনামুল রেজা০২ এপ্রিল ২০১৩, ২১:২২

ওয়ার্ড এলোমেলো কেমনে হইলো কে যানে!
মজা নিয়ে পড়তে পারলেই নিজের লেখাটা মজা করে লেখা যায়।আপনিও খুব ভাল থাকুন সব সময়।শুভেচ্ছা আর ভালবাসা।মুছে ফেলুন | ব্লক করুন
Maeenমাঈনউদ্দিন মইনুল০২ এপ্রিল ২০১৩, ২১:৩০

 

================================================

 

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s